লম্বা মানুষ থাকতে পারে ক্যান্সারের ঝুঁকি | হেলথ বার্তা
,
আপডেট

লম্বা মানুষ থাকতে পারে ক্যান্সারের ঝুঁকি

সম্প্রতি প্রায় ৫০ লক্ষ মানুষের উপর এক সুইডিশ গবেষণায় দেখা গেছে ক্যান্সার এবং উচ্চতা পরস্পরের সাথে সম্পর্কযুক্ত। এই গবেষণায় আরও দেখা গেছে একটু বেশি উচ্চতা সম্পন্ন মানুষের স্তন ক্যান্সার এবং ত্বক ক্যান্সারের ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় বেশি।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রাপ্ত বয়সে উচ্চতা যদি স্বাভাবিকের চেয়ে প্রতি ৪ ইঞ্চিতে মাত্র ১০ সে.মি. বেশি থাকে তবে পুরুষের মধ্যে ক্যান্সারের ঝুঁকি ১০ ভাগ এবং নারীদের মধ্যে এই ঝুঁকি ১৮ ভাগ বেড়ে যায়।

তবে বিশেষজ্ঞরা লম্বা মানুষদের একেবারে আশাহত করেননি। তারা জানান,  কেউ লম্বা হলেই যে তিনি ক্যান্সার আক্রান্ত হবেন এটা ভেবে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হবার কোনো কারণ নেই। বিশেষজ্ঞদের মতে লম্বা মানুষেরা যদি জীবনযাত্রায় কিছুটা পরিবর্তন আনতে পারেন তবে ক্যান্সারের ঝুঁকি থেকে বের হয়ে আসা সম্ভব।

ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে গুরুত্বপূর্ণ হলঃ

১। ধূমপান ত্যাগ

২। অ্যালকোহলে আসক্ত থাকলে তা পরিহার করা

৩। পরিমিত খাদ্য গ্রহণ

৪। স্বাস্থসম্মত জীবনযাত্রায় অভ্যস্ততা

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

উচ্চতার সাথে ক্যান্সার ঝুঁকির সম্পর্ক রয়েছে এটা বলা হলেও কেন সেই ঝুঁকি বেশি গবেষকদের কাছে সে প্রশ্নের উত্তর এখনও পর্যন্ত অজানা। স্টকহোমের ক্যারোলিংস্কা ইন্সটিটিউট এর গবেষকরা প্রাথমিক তথ্যে জানান, কীভাবে তারা দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে প্রাপ্তবয়স্ক একদল সুইডিস মানুষদের নজরদারীতে রেখেছেন।

অবশেষে তারা তাদের গবেষণার আংশিক সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পেড়েছেন। তারা সেই প্রতিবেদনে বলেন, লম্বা নারীদের মধ্যে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি ২০ ভাগ বেশি আর লম্বা নারী পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি ৩০ ভাগ বেশি।

ড. এমিলি বেনি বলেন, এই গবেষণার ফলে নিকট ভবিষ্যৎতে স্তন এবং ত্বক ক্যান্সারসহ সকল ক্যান্সারের চিকিৎসায় যুগান্তকারী উন্নয়ন সম্ভব হবে। গবেষণায় আরও বলা হয় শুধুমাত্র লম্বা হওয়াই নয় বরং শিশু পর্যায় থেকে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পিছনে কিছু বিষয়ও এই ঝুঁকির সাথে সম্পর্কিত। তাছাড়া এই ঝুঁকি ব্যক্তিভেদে একেক রকম হতে পারে।

তবে একটি বিষয়ে তারা পুরোপুরি নিশ্চিত আর তা হল লম্বা মানুষের বৃদ্ধি প্রক্রিয়া। লম্বা মানুষদের গায়ে কোষের সংখ্যা অনেক বেশি। তাই যেকোনো একটি কোষ সহজেই ক্যান্সার আক্রান্ত হতে পারে। তাছাড়া অপরিমিত খাবার গ্রহণসহ জীবনযাত্রায় কিছু বদঅভ্যাস এই ঝুঁকিকে অনেকগুণে বাড়িয়ে দেয়।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে