,
আপডেট

অসাধারণ সব পুষ্টিগুণ আছে মিষ্টি আলুতে

খেতে সুস্বাদু আর পুষ্টিকর একটি খাবার মিষ্টি আলু। সহজলভ্য এই খাবারটি অল্পতেই পেট ভরাতে দারুণ কার্যকর। ভাতের পরিবর্তেও মিষ্টি আলু খাওয়া চলে। মিষ্টি আলুতে রয়েছে মিনারেল, ভিটামিন, ডায়েটারি ফাইবার এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।

এসব উপাদান দেহের জন্য খুব বেশি জরুরি। প্রতি ১০০ গ্রাম মিষ্টি আলুতে রয়েছে ৮৬ কিলোক্যালরি, সোডিয়াম ৫৫ মিলি গ্রাম, পটাসিয়াম ৩৩৭ মিলিগ্রাম, কার্বোহাইড্রেট ২০.১২ গ্রাম, প্রোটিন ১.৫৭ গ্রাম, ফ্যাট নেই বললেই চলে। জেনে নেয়া যাক সুস্থতার জন্য মিষ্টি আলু কতোটা উপকারী ভূমিকা পালন করে।

হজম শক্তি উন্নত করে

ম্যাগনেসিয়ামের সঙ্গে যুক্ত ফাইবার বিভিন্ন ধরনে স্টোমাক প্রবেলম যেমন বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য, এবং এসিডিটি দূর করতে সাহায্য করে। মিষ্টি আলুতে বিদ্যমান উচ্চ মাত্রার ফাইবার আপনার পাকস্থলি এবং অন্ত্রকে দারুণভাবে কার্যকরী করে তুলে। সঠিকভাবে হজম প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে।

প্রদাহ রোধ

মিষ্টি আলুতে রয়েছে উচ্চ মাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা আপনার খাদ্যাতালিকাকে শক্তিশালী করতে সক্ষম। দেহের দাহ্যতা মূলক সমস্যা যেমন অ্যাজমা, ব্রংকাইটিস, বাত এবং গেটে বাতের মত সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। এর মধ্যে বিদ্যমান অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট ক্ষতিকারক উন্মুক্ত রেডিক্যাল দেহ থেকে দূর করে দেয়। এই রেডিকাল দেহের জ্বালাপোড়ার বৃদ্ধির অন্যতম কারণ।

মাংসপেশির টান লাগা

অনেকেরই প্রায়ই মাংসপেশিতে টান লাগায় সমস্যা থাকে। শরীরে পটাসিয়ামের অভাব থাকলে এই সমস্যা বেশি হয়। মাংসপেশিতে দীর্ঘদিন ধরে টান লাগার সমস্যা এক সময় মারাত্মক আকার ধারণ করে। মিষ্টি আলুতে এই পটাসিয়াম ভরপুর রয়েছে। তাই আপনার মাংসপেশির সমস্যা দূর এবং রক্ত সঞ্চালনকে উন্নত করতে খাবার তালিকায় মিষ্টি আলু রাখতে পারেন।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ

মিষ্টি আলুতে রয়েছে প্রাকৃতিক চিনি যা খুব ধীরে ধীরে নিসৃত হয় রক্তপ্রবাহে। এই প্রবাহ হঠাৎ করে ব্লাড সুগারের মাত্রা বেড়ে যেতে বাধা দেয়। এছাড়াও মিষ্টি আলু ইনসুলিন সেনসিটিভিটিকে উন্নত করে যা নিশ্চিত করে আপনার ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে আছে।

মানসিক চাপ দূর

আপনি যখন অতিরিক্ত মানসিক চাপে থাকেন তখন রক্তে পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামের মাত্রা হঠাৎ করে ভেঙে যায়। এই সমস্যা দূর করার জন্য মিষ্টি আলু অধিক কার্যকর। মিষ্টি আলুতে বিদ্যমান পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম ভারসাম্য বজার রেখে হার্টবিটকে স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। নিমিষেই মানসিক চাপ দূর করে দেয়।

রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

এই সবজিতে পর্যাপ্ত আয়রন থাকায় হোয়াইট ব্লাড সেল প্রোডাকশনকে সক্রিয় করে। এছাড়াও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে সঠিক রাখে। মিষ্টি আলুতে রয়েছে ভিটামিন ডি যা শারীরিক সক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেয়।

হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখে

ভিটামিন বি৬ এবং পটাসিয়াম সমৃদ্ধ মিষ্টি আলু হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোক থেকে সুরক্ষা দিতে সাহায্য করে। তরল এবং ইলেক্ট্রোলাইটের সঠিক ভারসাম্যপূর্ণ সঞ্চালনের ফলে হার্ট থাকে সুস্থ।

ক্যানসারের জীবানু দূর

মিষ্টি আলুতে বিদ্যমান অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যানসার উৎপাদনকারী উন্মুক্ত রেডিক্যাল কে প্রতিহত করে। এছাড়াও এই আলুতে বিদ্যমান বেটা ক্যারোটিন যা বিভিন্ন ধরনে ক্যানসার যেমন কিডনি, কোলন, অন্ত্র এবং প্রোস্টেট ক্যানসার থেকেই সুরক্ষা দেয়। পাশাপাশি চোখের ড্যামেজ হওয়া থেকেও রক্ষা করে।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply