,
আপডেট

ঝটপট ওজন কমাতে চান? তবে ঘরেই রাখুন কমদামী এই সবজিটি

রান্না করে খান অথবা কাঁচা, কমদামী এই সবজিটি ওজন কমাতে ভীষণ কার্যকরী! ডায়েট করার ইচ্ছে না থাকলেও বাড়িতে রাখুন বাঁধাকপি, আপনার শরীরটাকে সবসময় ঝরঝরে রাখতে এর নেই কোনো তুলনা।

অন্যান্য সবজির কথা না বলে বাঁধাকপির কথা কেন বলছি? কারণ এতে রয়েছে এমন সব প্রাকৃতিক গুণাগুণ যা ওজন কমানোর জন্য বেশি ভালো। কম খরচে ওজন কমাতে চাইলে তো বাঁধাকপি আপনার দরকার হবেই।

সাধারণত যে সবুজ বা সাদা ধরণের বাধাকপিটি আমরা খাই, তার চাইতে বেশি স্বাস্থ্যকর হলো লালচে-বেগুনী ধরণের বাঁধাকপিটি। সাধারণত রঙ্গিন সবজিতেই ভিটামিন বেশি হয়ে থাকে, বাঁধাকপিও তার ব্যতিক্রম নয়।

শরীরের পানি বের করে দেয়

অনেকের শরীরে পানি জমে ফুলে থাকে, কাজে আসে না ওজন কমানোর শত কৌশল। কিন্তু খনিজ এবং পানিতে পুর্ণ বাঁধাকপি নিয়মিত খেলে শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি এবং টক্সিক বের হয়ে যাবে, ফলে শরীরটাও ঝরঝরে হয়ে যাবে দ্রুত।

পেট ফাঁপা রোধ করে

ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি যথেষ্ট পরিমাণে আছে বাঁধাকপিতে। এ কারণে কোনো ইনফেকশন থেকে পেট ফেঁপে থাকলে তা কমায় এই সবজিটি। তবে এর জন্য সবুজ বা সাদা বাঁধাকপির চাইতে বেগুনী বাঁধাকপিটা বেশি ভালো।

হজমে সহায়তা করে

বাঁধাকপিতে ভিটামিন ছাড়াও আছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। নিয়মিত বাঁধাকপি খেলে পেট পরিষ্কার থাকবে, বদহজমের সমস্যা হবে না। এছাড়াও গ্যাস, বুক জ্বালাপোড়ার সমস্যাও কমে যাবে।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

কমায় কোলেস্টেরল

খাওয়ার পর শরীরে চর্বি গ্রহণের পরিমাণ কমায় বাঁধাকপি। এ ছাড়াও সার্বিকভাবে শরীরে কোলেস্টেরল কমায় এই সবজিটি।

ওজন কমানোর এক ধরণের ডায়েট প্ল্যান আছে, যেখানে বাঁধাকপির স্যুপ পান করে সপ্তাহে ১০-১৫ পাউন্ড ওজন ঝরিয়ে ফেলা যায় চট করে। তবে এ ছাড়াও ওজন কমাতে গেলে বিভিন্ন উপায়ে বাঁধাকপি খেতে পারেন আপনিও।

  • বাঁধাকপি রান্না করুন যতটা কম সম্ভব। বেশিক্ষণ ধরে আঁচে রাখলে এর উপকারী কিছু উপাদান ভেঙ্গে যায়। এমনভাবে রান্না করুন যাতে কচকচে থেকে যায়। সম্ভব হলে কাঁচা বাধাকপিটকেই সালাদ করে খেয়ে ফেলুন।
  • ওজন কমানোর জন্য অনেকেই প্রোটিন পাউডার, লো ফ্যাট ডেইরি ইত্যাদি কিনে থাকেন। সে তুলনায় বাঁধাকপি অনেক কমদামী। একটা আস্ত বাঁধাকপি নিশ্চিন্তে ফ্রিজে রাখা যায় সপ্তাহখানেক। কেটে রাখলেও ভালো থাকে ৫-৬ দিন।
  • কিন্তু কাঁচা বাঁধাকপি আবার সব বেলার খাবারে রাখতেই হবে, এমন কোনো কথা নেই। বেশি বাঁধাকপি খেলে শরীর আয়োডিনের অভাবে ভুগতে পারে।
  • বাঁধাকপির সাথে অনেকটা করে মেয়োনেজ এবং চিনি মিশিয়ে কোলস্ল তৈরি করে তা দিয়ে ফ্রাইড চিকেন খেতে ভালোবাসেন কেউ কেউ। জেনে রাখুন এতে বাঁধাকপি খাওয়ার উপকার পুরোটাই মাঠে মারা যাবে।

সূত্র: Superfood: Cabbage, greatist.com/ The Inexpensive Superfood That Supports Weight Loss, PopSugar/ সংগ্রহ: প্রিয়ডটকম

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply