,
আপডেট

নিজের অজান্তেই যে মারাত্মক অপরিষ্কার জিনিসগুলো আপনি স্পর্শ করছেন

আমরা যখন অসুস্থ হয়ে পরই তখন সবার প্রথমেই আমরা চিন্তা করি আমাদের খাওয়ার অসাবধানতা কিংবা কোনো উলটোপালটা কাজের কারণে হয়তো অসুস্থ এই অসুস্থ হওয়া। আবার যখন অসাবধানতার কিছু খুঁজে পাই না তখন দোষ দিই আবহাওয়ার।

কিন্তু সব সময় আমাদের অসাবধানতা কিংবা আবহাওয়ার কারণেই আমরা অসুস্থ হয়ে পড়ি না। অসুস্থতার পেছনে কারণ থাকে আমাদের অজ্ঞতা। আমরা জানিই না আমাদের কিছু অজ্ঞতা আমাদের দেহকে করে তুলছে রোগাক্রান্ত।

আমরা প্রতিদিন এমন কিছু জিনিস ধরে থাকি এবং ব্যবহার করে থাকি যা আপাত দৃষ্টিতে অনেক পরিষ্কার মনে হলেও মারাত্মক অপরিষ্কার। এবং এই অপরিষ্কার জিনিসগুলো থেকেই আমাদের দেহে প্রবেশ করে জীবাণু এবং আমরা হই রোগাক্রান্ত।

রান্নাঘরের জিনিসপত্র এবং মেঝে

অনেকেই ভেবে থাকেন রান্নাঘর সব সময় পরিষ্কার রাখা হয় তাই রান্নাঘর অন্যান্য অনেক স্থানের চাইতে বেশি পরিষ্কার। কিন্তু আসলে তা নয়। গবেষণায় দেখা যায় একটি থালাবাসন মাজার স্পঞ্জে যতো জীবাণু থাকে তা একটি সাধারণ কমোড সিটের চাইতে প্রায় ২ লক্ষ গুন বেশি।

এছাড়াও রান্নাঘরের মেঝে ও রান্নার সকল জিনিসপত্র এমনকি ফ্রিজের হ্যান্ডেলও মারাত্মক অপরিষ্কার জিনিস যার মাধ্যমে আমাদের দেহে প্রবেশ করে জীবাণু। তাই এগুলো ধরার পরে অবশ্যই ভালো করে হাত পরিষ্কার করে নেয়া উচিৎ।

টাকা

গবেষণায় দেখা যায় মাত্র একটি টাকার নোটে প্রায় ১,৩৫,০০০ ব্যাকটেরিয়ার বসবাস থাকে। শুনতে অবিশ্বাস্য শোনালেও এটি সত্যি। কিন্তু আমাদের প্রতিদিন অনেক নোটই ধরতে হয়। তাই টাকা ধরার পরও হাত ভালো করে পরিষ্কার করে নেয়া উচিৎ সুস্থ থাকতে চাইলে।

দরজার হাতল

বাসা এবং বাইরে আমাদের অনেক দরজার হাতল ধরতে হয়। এবং এটিও অনেক বেশি মাত্রায় অপরিষ্কার একটি জিনিস। ঘরের বাইরের যেকোনো ধরণের দরজার হাতল আপনার আগে অগনিত মানুষ ধরেছেন, অপরিষ্কার হয়েছে।

বিশেষ করে পাবলিক টয়লেট জাতীয় স্থানের দরজার হাতল। সুতরাং সাবধান। ঘরের বাইরে হাত ভালো করে ধোয়ার ব্যবস্থা করতে না পারলে অবশ্যই সাথে রাখুন হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

এটিএম বুথ

প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এটিএম বুথ ব্যবহার করে থাকেন। এভাবেই এটিএম বুথের বাটন গুলোতে রয়ে যায় ব্যাকটেরিয়া যা স্পর্শের পর আপনার দেহে প্রবেশ করে। সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা যায় এটিএম বুথে দুই ধরণের ব্যাকটেরিয়ার দেখে মেলে, ব্যসিলাস ও সেউডোমোনাডস। এই ব্যাকটেরিয়াগুলো ডায়রিয়া এবং খাবার হজমে সমস্যা তৈরি করে। তাই পরবর্তী সময়ে অসুস্থ হয়ে কোনো রেস্টুরেস্টকে দোষারোপ না করে নিজে এটিএম বুথ ব্যবহারের ব্যাপারে সতর্ক হোন।

শপিং মলের ঝুড়ি

আজকাল সুপারশপ গুলোতে শপিং করতে গেলে বাজারের সম্য শপিং মলের ঝুড়ি নিতে হয়। এই জিনিসটিও মারাত্মক অপরিষ্কার একটি জিনিস। এই জিনিসটি থেকে আপনার হাতে তো জীবাণু প্রবেশ করেই সেই সাথে আপনি কাঁচা কোনো বাজার নিলে তাতেও প্রবেশ করে ব্যাকটেরিয়া।

ইলেকট্রিক সুইচ

বাসা ও বাসার বাইরে যেকোনো ইলেকট্রিক সুইচের ব্যবহারের পর হাত ধুয়ে নেয়া জরুরী। কারণ এতেও থাকে প্রচুর পরিমাণে জীবাণু যা খুব দ্রুতই আমাদের দেহে প্রবেশ করে থাকে।

রিমোট কন্ট্রোল

বাসায় থাকে বলে মনে করবেন না ঘরের মানুষের দ্বারা এই রিমোট কন্ট্রোলে কোনো জীবাণু প্রবেশ করে না। বারবার এবং অনেকের দ্বারা ব্যবহৃত জিনিসগুলো সাধারণত অপরিষ্কার হয়েই থাকে যা থেকে জীবাণু প্রবেশ করে দেহে।

মোবাইল ফোন

বারবার এবং যেকোনো স্থানে ব্যবহারের সময় এই ফোনের বাটন ও স্ক্রিন থেকে জীবাণু আমাদের হাতে এবং দেহে প্রবেশ করে থাকে আমাদের অজান্তেই।

কমোডের সিট ও বাথরুমের মেঝে

ভালোমতো পরিষ্কার এবং প্রতিদিন গোসলের পর আমরা ভেবেই থাকি পানির ধারায় সকল ধরণের ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু দূর হয়ে যায়। কিন্তু এটি অনেক ভুল একটি তথ্য। নিউমনিয়া, সেপ্টিসিমিয়া এবং মুত্রথলির নানা ইনফেকশনের জন্য দায়ী এই অপরিষ্কার টয়লেট সিট ও বাথরুমের মেঝে।

লিফটের বাটন

বাসা এবং বাসার বাইরে অনেক বার এবং অনেক জায়গায় লিফট ব্যবহার করে থাকি আমরা। এই বাটনগুলোও মারাত্মক অপরিষ্কার জিনিস যা থেকে আমাদের দেহে জীবাণু প্রবেশ করে থাকে।

ওভেন

কেউ ভাবতেই পারেন না ওভেনের মতো একটি জিনিসও মারাত্মক অপরিষ্কার হতে পারে। প্রতিদিন নিয়মিত ওভেন পরিষ্কার করা উচিৎ যা অনেকেই করেন না। ফলে এর মাধ্যমে দেহে ও খাবারে চলে যায় ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply