সঠিক খাদ্যভ্যাসে এড়িয়ে চলুন ক্যান্সার, জেনে নিন ৬ টি টিপস | হেলথ বার্তা
,
আপডেট

সঠিক খাদ্যভ্যাসে এড়িয়ে চলুন ক্যান্সার, জেনে নিন ৬ টি টিপস

ক্যান্সারের সাথে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত। মারাত্মক রোগটির ব্যাপারে কিছু না কিছু আমরা জানি। এমনকি অনেকের পরিবারেই রয়েছে ক্যান্সারের রোগী। ক্যান্সারের চিকিৎসা যেমন ব্যায়বহুল ও দীর্ঘমেয়াদী, তেমনি রোগীর শরীর ও মনের ওপরে এর বিরূপ প্রভাবটাও অনেক প্রবল। মৃত্যু ঝুঁকির কথা তো বলাই বাহুল্য।

তাই ক্যান্সার হবার আগেই তাকে থামিয়ে দেওয়া বা তার অগ্রগতিকে ধীর করে দেবার জন্য যদি কিছু করার থাকে তবে আমাদের অবশ্যই উচিত তা করা। খাদ্যভ্যাসে কিছু পরিবর্তন আনলেই কিন্তু অনেক ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়। কি সেসব পরিবর্তন?

১) বেশি করে ফলমূল ও সবজি, বিশেষ করে শাক জাতীয় খাবার সব ধরণের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়

সব ধরণের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে শাক-সবজি এবং ফলমূল। এর কারণ হলো এসবের মাঝে থাকা প্রতিরোধী সব উপাদান। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় ব্রকোলির মাঝে থাকা ফাইটোকেমিক্যাল যা বেশ কয়েক ধরণের ক্যান্সার রোধ করতে পারে।

২) সয়াবিন থেকে তৈরি করা খাবার কমাতে পারে ব্রেস্ট ক্যান্সার হবার এবং একবার সেরে যাবার পর আবার ফিরে আসার ঝুঁকি

সয়াবিন থেকে তৈরি খাবার যেমন সয়া প্রোটিন, টোফু জাতীয় খাবারেও থাকে ক্যান্সার প্রতিরোধী উপাদান। আর মাংসের পরিবর্তে যদি খাদ্য তালিকায় টোফু জাতীয় খাবার রাখা হয় তাহলে ক্যান্সার সৃষ্টিকারী উপাদান থেকেও বাঁচা যায়।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

৩) দুগ্ধজাত খাবার কমিয়ে দিলে কমে যাবে প্রোস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা যায় দুধ এবং দুধের তৈরি খাবারের কারণে বাড়ে প্রোস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি কিন্তু আসল দোষটা সম্ভবত ক্যালসিয়ামের। প্রোস্টেট ক্যান্সারের পারিবারিক ইতিহাস থেকে থাকলে দুগ্ধজাত খাবারের পরিমাণ কমিয়ে দেওয়াই ভালো।

৪) মুখ, গলা, কোলন, রেক্টাম এবং ব্রেস্ট ক্যান্সার এড়াতে অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন

এ সব ধরণের ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে মদ্যপানের পরিমাণের সাথে সাথে।

৫) কোলন এবং রেক্টাম ক্যান্সারের ঝুঁকি এড়াতে লাল মাংস এবং প্রক্রিয়াজাত মাংস এড়িয়ে চলুন

শুধু ক্যান্সারই নয়, মাংস খাওয়া কমিয়ে দিলে হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং ডায়াবেটিসের ঝুঁকিও কমে অনেকটাই। মাংস একেবারেই খাবেন না তা অবশ্য নয়। মাঝে মাঝে খেতে পারেন কিন্তু অবশ্যই নিজের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে।

৬) কোলন, রেক্টাম, ব্রেস্ট, প্রোস্টেট, কিডনি এবং প্যানক্রিয়াস ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে ভাজা-পোড়া মাংস এড়িয়ে চলুন

মাংস উচ্চ তাপে রান্না করা হলে তার মাঝে তৈরি হয় ক্যান্সার সৃষ্টিকারী উপাদান হেটেরোসাইক্লিক অ্যামাইন। এমনকি ভাজা-পোড়া মাংসের ধোঁয়া সবজিতে গিয়ে লাগলে সেখানেও এই ঝুঁকি থাকতে পারে। এ কারণে এভাবে রান্না করে মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply