,
আপডেট

চটজলদি ওজন কমাতে চাইলে অবশ্যই মনে রাখবেন যে বিষয়গুলো

দেহে বাড়তি ওজন থাকা মানেই বাড়তি অনেক যন্ত্রণা। অনেক বিধি নিষেধ মেনে খাওয়া দাওয়া করা এবং পছন্দের অনেক খাবার থেকে দূরে থাকা, নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম করা আরও কতো কি।

সব চাইতে যন্ত্রণাদায়ক কাজটি হলো ডায়েট করে ওজন কমানোর কাজটি করা। অনেকেই এই কাজটি করতে একেবারেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না। কিন্তু কিই বা করার আছে। ওজন কমাতে চাইলে একটু কষ্টতো করতেই হবে।

কিন্তু ডায়েটের কিছু বিষয় রয়েছে যা খুব সতর্কতার সাথে করতে হয়। ডায়েটিইং করার সময় অনেক জিনিসের প্রতি লক্ষ্য রাখা খুব জরুরী দরকার। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক সেই বিষয়গুলো কী কী।

সব ফ্যাট দেহের জন্য খারাপ নয়

যারা একটু বাড়তি ওজন কমাতে ডায়েটিং করেন তাদের অনেকেরই ধারণা থাকে ফ্যাট মানেই ওজন বাড়ায় এবং দেহের জন্য খারাপ। আসলেই কিন্তু তা নয়। আপনার দেহের সকল কার্যকলাপ ঠিকঠাক মতো করার জন্য কিছুটা ফ্যাটের প্রয়োজন রয়েছে। এবং সব ফ্যাটই খারাপ নয়। মাছের ফ্যাট, ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, বাদামের ফ্যাট ইত্যাদি অনেক ভালো ফ্যাট যা দেহে ভারসাম্য বজায় রাখে এবং ত্বকের সুরক্ষা করে।

পানি পানে কৃপণতা নয়

ডায়েটিং শুধুমাত্র খাবারের জন্য প্রযোজ্য। যতো ধরনের খাবার রয়েছে তা খাওয়ার ব্যাপারে সতর্কতার প্রয়োজন ডায়েট করার সময়। কিন্তু পানি পানের সাথে এর কোনো সম্পর্ক নেই।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

ডায়েট করে ওজন কমানোর সময় অবশ্যই প্রচুর পরিমাণে পানি পান করবেন। এতে দেহ হাইড্রট থাকবে। এবং পানি বেশি পান করলে আপনার ক্ষুধা অনেক কম লাগবে। সুতরাং পানি পানে মোটেও কার্পণ্য করবেন না।

মনের ক্ষুধাকে প্রাধান্য দেবেন না

মাঝে মাঝে অনেক বেশি ক্ষুধা অনুভূত হয় যা অনেকাংশে শুধুমাত্র মনের ক্ষুধাই থেকে থাকে। কিছু করছেন না, বোরিং লাগছে তখন মনে হবে অনেক ক্ষুধা লেগেছে কিছু খেয়ে নিই, এবং নানা হাবিজাবি খাবার খাওয়া হয়। এই ধরনের মনের ক্ষুধাকে একেবারেই প্রাধান্য দিতে যাবেন না। এতে ক্ষতি আপনারই।

প্রচুর ফল খাবেন

ডায়েট করে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে যে বিষয়টির প্রতি অনেক লক্ষ্য রাখবেন তা হলো খাদ্যতালিকা। খাদ্যতালিকায় অবশ্যই প্রচুর পরিমাণে ফল রাখবেন। ফলের রস বা অন্য কোনো প্রসেসড ফল নয়, তাজা ফল রাখবেন খাদ্যতলিকায়। ফলের মিনারেলস আপনার দেহে প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করবে।

একবারে অনেক বেশি ওজন কমিয়ে ফেলা ভাল নয়

অনেকেই আছেন ওজন কমানো শুরু করলে একেবারে অনেকটা ওজন কমিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন। এই কাজটি একেবারেই উচিত নয়। এতে দেহের অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে। প্রথমে ৫ কেজি ওজন কমিয়ে কিছুটা সময় ডায়েট বন্ধ রাখুন, দেহকে নতুন পরিবর্তনের সাথে খাপ খাইয়ে নেয়ার সময় দিন।

তারপর আবার শুরু করুন। তবে ডায়েটিং বন্ধ করার মানে এই নয় যে আপনি অনেক বেশি আজেবাজে খাবার খেয়ে ৫ কেজি নতুন করে দেহে যোগ করে নেবেন। ডায়েট বন্ধ রাখুন তবে পরিমিত খাবার খান।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply