মস্তিষ্ককে সুস্থ রাখতে চাইলে করতে হবে যে অত্যন্ত জরুরী কাজগুলো | হেলথ বার্তা
,
শিরোনাম

মস্তিষ্ককে সুস্থ রাখতে চাইলে করতে হবে যে অত্যন্ত জরুরী কাজগুলো

মস্তিস্ক আমাদের দেহের সব কিছুর পরিচালক। আমাদের দেহের প্রত্যেকটি অঙ্গপ্রত্যঙ্গ মস্তিস্কের ওপর নির্ভরশীল। মস্তিস্ক সুস্থ থাকলে আমাদের দেহও সুস্থ থাকবে। কিন্তু আমরা আমাদের ভুলে মস্তিষ্ককে অসুস্থ করে ফেলি নিজের অজান্তেই। সঠিক খাদ্যাভ্যাস না থাকা, ঘুম কম হওয়া কিংবা অনিদ্রায় ভোগা, অলসতা এই সকল জিনিস মস্তিস্কের স্বাস্থ্যকে নষ্ট করে ফেলে।

কিন্তু আমাদের দেহের সুস্থতার কারণে আমাদের মস্তিষ্ক সুস্থ রাখা অনেক বেশি জরুরী। আর মস্তিষ্ক সুস্থ রাখতে আমাদের সতর্কতার সাথে করতে হবে কিছু কাজ। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক মস্তিষ্ককে সুস্থ রাখতে চাইলে যে জরুরী ৫ টি কাজ করতে হবে আমাদের।

মাছ খান:

মাছ অনেকেই পছন্দ করেন না খেতে। অনেকের অনেক মাছে অ্যালার্জিও রয়েছে। কিন্তু তাই বলে মাছ খাওয়া বন্ধ করা একেবারেই উচিৎ নয়। কারণ মাছ আমাদের মস্তিস্কের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি খাবার। মাছের মধ্যে যে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড রয়েছে তা আমাদের মস্তিস্কের কর্মক্ষমতা এবং বুদ্ধিমত্তা প্রায় ১০% বেশি বাড়ায়। তাই সপ্তাহে অন্তত ২ দিন খাবার তালিকায় মাছ তাখা জরুরী।

নিয়মিত ব্যায়াম করুন:

নিয়মিত ব্যায়াম করা আমাদের দেহের পাশাপাশি মস্তিস্ককেও সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। আমদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের মস্তিস্কের কোষ তৈরি হওয়া কমে যায়।

এবং মস্তিস্কের আকার ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে। নিয়মিত ব্যায়াম আমাদের দেহের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে এবং একই সাথে মস্তিস্কের নতুন কোষ তৈরিতে সাহায্য করে। এতে করে আমাদের মস্তিষ্ক সুথ থাকে। তাই নিয়মিত ব্যায়াম করা সকলের উচিৎ।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

নতুন কিছু করার চেষ্টা করুন:

আমরা যখন একটি গৎবাধা রুটিনে জীবন সাজিয়ে নিইতখন আমাদের মস্তিষ্ক সেই অনুযায়ী তৈরি হয়ে যায় এবং এর বাইরে চিন্তা করার ক্ষমতা হারিয়ে ফ্লে।

এতে মস্তিষ্ক অলস হয়ে পরে এবং ধীরে ধীরে আমরা সাধারণ চিন্তা করার ক্ষমতা এবং বুদ্ধিমত্তা হারাতে থাকি। এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে মস্তিষ্ককে সচল রাখা উচিৎ নতুন কোনো কাজে নিজেকে নিয়োগ করে। নতুন কাজ করার সময় আমাদের মস্তিষ্ক অলসতা ছেড়ে সচল থাকে।

মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকুন:

মানসিক চাপ মস্তিস্কের জন্য সব চাইতে ক্ষতিকর একটি জিনিস। মানসিক চাপ মস্তিস্কের নিউরন এবং কোষ গঠন ধীর করে ফেলে এবং স্বাভাবিক চিন্তা করার ক্ষমতাকে লোপ করে দেয়। মানসিক চাপের কারণে স্মৃতিশক্তি লোপের ঘটনাও ঘটতে দেখা যায়। মানুষের জীবনে সমস্যা থাকবেই। তা নিয়ে চাপ নিয়ে নিজের ক্ষতি করার তো কারণ নেই। সুস্থ থাকুন। এতে সমস্যা সমাধান করতে পারবেন।

মেডিটেশন করুন:

আমাদের মস্তিষ্কে সব সময় অনেক কিছু নিয়ে চাপের সৃষ্টি হয়। আমরা জীবনে নানা বিষয়ে চিন্তা ভাবনে করতে থাকি। এতে মস্তিষ্কে যে চাপের তৈরি হয় তা আমাদের সাধারণ চিন্তা করার ক্ষমতা কমিয়ে দেয়।

তাই আমাদের প্রতিদিন কিছুটা সময়ের জন্য হলেও মস্তিষ্ককে বিশ্রাম দেয়া উচিৎ। আর বিশ্রাম দিতে মেডিটেট অর্থাৎ যোগব্যায়ামের কোনো তুলনা নেই। তাই প্রতিদিন অন্তত ১০ টি মিনিট হলেও মেডিটেট করুন। এতে মস্তিষ্ক সুস্থ থাকবে।

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে