,
আপডেট

৪০ এর পরও “ফিট” থাকার ৬ টি হিট টিপস

বয়স ৩০/৩৫ পার হতে না হতেই দেহে বার্ধক্যের ছাপ পড়া শুরু হতে থাকে। শত কাজের ব্যস্ততায় সব কিছু ভুলে থাকতে চাইলেও শরীরের ক্লান্তি এবং কাজ করার ক্ষমতা কমে আসা বিষয়টি বয়সটা ঠিকই জানান দিয়ে যায়। সমস্যা হলো ৩০ থেকে ৪০ এর এই সময়টুকু কেমন যেন দেখতে দেখতেই পার হয়ে যায়।

আগে থেকে একটু নিজেকে তৈরি করে নেয়ার সময়ই পাওয়া যায় না। তাই সচেতন হতে হবে তারুণ্য থাকতেই। যাতে ৪০ পার হলেও শরীরে যেন বার্ধক্যের ছায়া না পড়ে যায়। আর সেকারণে আজকে আপনাদের জন্য রইল ৪০ এর পরও ফিট থাকার ৬ টি হিট টিপস।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)
  •  ঘুম থেকে সকাল সকাল উঠার অভ্যাসটি তৈরি করে ফেলুন যত দ্রুত সম্ভব। সকালের তাজা হাওয়া এবং স্নিগ্ধ আলোতে করুন ব্যায়াম বা জগিং কিংবা হাঁটাহাঁটি অথবা যোগব্যায়াম।
  •  শরীরের মেদ কমানোর চেষ্টা করুন। যাদের শরীরে মেদ বেশি তাদের অল্প বয়সেই বার্ধক্য চলে আসে। নিজের উচ্চতা অনুযায়ী সঠিক ওজন করার চেষ্টা করুন।
  •  তাজা খাবার খান। টিনজাত এবং বাসি খাবার এড়িয়ে চলুন। খাবারে প্রচুর সবুজ শাকসবজি, প্রয়োজনমতো মাছ মাংস এবং তাজা মৌসুমি ফল রাখুন। এতে দেহ থাকবে সুস্থ।
  •  প্রতিদিন অবশ্যই ১০০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার রাখুন খাদ্য তালিকায়। ক্যালসিয়াম হাড়ের সমস্যা দূর করবে।
  •  সকালে উঠে ব্যায়ামের সময়, সারাদিন কাজ কর্মের মাঝে এবং রাতে ঘুমানোর আগ পর্যন্ত পুরোদিনে ৬-৮ গ্লাস পানি পান করুন। এতে দেহের কোষ থাকবে উজ্জীবিত ও সতেজ।
  •  লিফট এর পরিবর্তে সিঁড়ি ব্যবহার করার অভ্যাস করুন। এর পাশাপাশি কম দূরতের জায়গায় যেতে রিক্সার পরিবর্তে হাঁটার অভ্যাস গড়ে তুলুন।
বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply