,
আপডেট

৮টি অভ্যাসে দ্রুত কমিয়ে ফেলুন ওজন, বাড়ান সৌন্দর্য

একটু বাড়তি ওজন নিয়ে বিপদে পরে থাকেন অনেকেই। পছন্দের কোন জামাকাপড় দেহের মাপ অনুযায়ী না হয়ে দেখতে বিশ্রী লাগার কারণ এই বাড়তি ওজনটুকু। এছাড়াও বাড়তি ওজনের মানুষেরা থাকেন অনেক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে। কিন্তু এই ওজন আমাদেরই অনিয়ম এবং বাজে খাদ্যাভ্যাসের কারণে হয়ে থাকে। ওজন কমানোর জন্য বেশিরভাগ মানুষ চিন্তিত থাকেন।

কী করলে ওজন কমবে, কীভাবে চললে একটু কম মোটা দেখাবে, কী কী না খেলে ওজন কমবে আরও কত কি! ইচ্ছায়-অনিচ্ছায় অনেক কাজ করে থাকেন ওজন কমানোর জন্য। অনেক বিধি নিষেধ মেনে চলেন। কারণ একটাই, ওজন কমানোর উপায় বের করতে হবে।

কিন্তু মাত্র কিছু অভ্যাস নিজেদের মধ্যে গড়ে তুললে আমরা মুক্তি পেতে পারি ওজনের সমস্যা থেকে। অবাক হলেও সত্যি আমাদের এই অভ্যাসগুলো দূর করবে দেহের মেদ। চলুন জেনে নেই রইল পেটের দ্রুত ও সহজে ওজন কমানোর ৮টি দারুণ অভ্যাসগুলো।

ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খান:

ফাইবার আমাদের দেহের বাড়তি সকল ধরনের খাদ্য উপাদান শুষে নেয়ার কাজ করে যা দেহে এমদ হিসেবে জমত। খাবারে ফাইবারের পরিমান বাড়ালে দেহে মেদ জমতে পারে না। বাঁধাকপি, ফুলকপি, ব্রকলি, ভুট্টা, কমলালেবু জাতীয় খাবারে প্রচুর পরিমানে ফাইবার রয়েছে। খাদ্য তালিকায় এই ধরনের খাবারের মাত্রা বাড়ান।

ডিম খান:

প্রতিদিন সকালের নাস্তায় ডিম রাখার অভ্যাস করুন। ডিম ওজন কমাতে বেশ কার্যকরী একটি খাবার। ডিম প্রোটিনের বেশ ভালো একটি উৎস যা অনেকটা সময় ধরে আমাদের ক্ষুধা নিবারণ করে। ফলে কম খাওয়া হয়। এতে ওজন কমে।

সকালের রোদ গায়ে লাগান:

ভিটামিন ডি ওজন কমানোর বেশ ভালো একটি উপাদান। সকালের রোদ দেহে ভিটামিন ডি সরবরাহ করে যা দেহে জমে থাকা মেদ দূর করতে সাহায্য করে। তাই সকালে ঘুম থেকে উঠে রোদের আলোয় বের হওয়ার অভ্যাস করুন।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

পরিমিত ঘুমান:

ওজন কমানোর জন্য ঘুমের প্রয়োজন অনেক বেশি। বেশি ঘুমুলে যেমন ওজন বাড়ে ঠিক তেমনই কম ঘুমালেও ওজন বাড়ে। তাই প্রতিদিন পরিমিত পরিমান ঘুমানোর চেষ্টা করুন। দৈনিক ৬-৮ ঘণ্টা ঘুমের অভ্যাস ওজন বাড়তে বাঁধা প্রদান করে।

টিভির সামনে বসে খাবেন না:

অনেকেই টিভির সামনে বসে খান যা ওজন বাড়ানোর জন্য দায়ী। এর কারণ হলো টিভির সামনে বসে খাওয়া শুরু করলে খাবারের কোন হিসাব থাকে না। অনেক ক্ষেত্রেই খাওয়া অনেক বেশি হয়ে যায়। এছাড়া টিভির সামনে বসে অনেকে স্নাক্স জাতীয় অস্বাস্থ্যকর খাবার খান। এতেও ওজন বাড়ে। তাই টিভির সামনে বসে না খাবার অভ্যাস করুন।

মাংস রান্নায় সবজি ব্যবহার করুন:

অনেকেই মাংস রান্না করলে শুধু মাত্র মাংস দিয়ে ভুনা বা ঝোল তৈরি করেন। এই কাজটি বন্ধ করুন। মাংস রান্নায় মাংসের সাথে সবজি ব্যবহার শুরু করুন। এতে করে মাংসের ক্যালরি কমাতে সাহায্য করবে সবজি। এবং স্বাদেও আসবে ভিন্নতা।

ভালো করে চিবিয়ে খাবার খান:

তাড়াহুড়ো করে খাবার অভ্যাস আসে অনেকরই। এতে ওজন বাড়ে। কারণ তাড়াহুড়ো করে খাবার বেশি চিবিয়ে খাওয়া হয় না এবং হজমে সমস্যা তৈরি হয়। এতে করে দেহে জমে মেদ। তাই খাবার খাওয়ার সময় ভালো করে চিবিয়ে খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করুন।

স্যুপ এবং সালাদ খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করুন:

স্যুপ এবং সালাদ জাতীয় খাবার দেহে কম ক্যালরি সরবরাহ করে। তবে অবশ্যই কোন প্রকার ফ্যাট ড্রেসিং সমৃদ্ধ সালাদ খাওয়ার অভ্যাস করবেন না। সাধারণ ভাবে তৈরি ঘরোয়া সালাদ খান। বিকেলের নাস্তায় কোন প্রকার তেলে ভাজা ফ্যাট স্নাক্স বাদ দিয়ে স্যুপ খাওয়ার অভ্যাস করুন। ওজন কমবে দ্রুত।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply