,
আপডেট

চমৎকার একটি ঘুম চাইলে করুন এই ১০টি কাজ

অনেকেই নিদ্রাহীনতার কারণে শারীরিক ও মানসিক অনেক প্রকার জটিলতায় ভুগে থাকেন। জীবনে নেমে আসে অযথা অশান্তি। অথচ শুধুমাত্র গভীর ঘুমই আপনাকে দিতে পারে অনেক অনেক সমস্যার সমাধান। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, চাইলেই তো আর গভীর ঘুম দেওয়া যায় না।

কিন্তু আপনি কী জানেন, সহজ কিছু কাজ আপনাকে উপহার দিতে পারে ভালো ঘুম? আসুন জেনে নেই, কী সেই সহজ কাজগুলো।

আপনার বেডরুমটি একটু গুছিয়ে নিন:

আপনার ঘুমের ঘরটি এমনভাবে সাজান, যেন তা হয় শান্ত, শান্তিময় এবং খানিকটা আধাঁর। বিছানাকে আপনি যতটা আরামদায়ক পছন্দ করেন, ঠিক তেমনটা করে নিন।

ঘুমাতে একটা রুটিন বানিয়ে ফেলুন:

প্রতিদিন রাতে একটা নির্দিষ্ট সময় নির্ধারন করে ফেলুন ঘুমাতে যাওয়ার জন্য। এ সময় এমন কিছু করুন, যা আপনাকে তন্দ্রচ্ছন্ন করে দেয়। এই যেমন, হালকা মেজাজের কোনো বই পড়ুন অথবা শীতল কোনো সঙ্গীত শুনুন।

এসব কাজ আপনাকে সারাদিনের ব্যস্ততার কারণে মনের ওপর যে চাপ পড়েছে, তা দূর করে দেবে। ফলে আপনি খুব সহজেই ঘুমের দেশে হারাবেন।

সকল উত্তেজক পদার্থ এড়িয়ে চলুন:

অ্যালকোহল এবং ক্যাফেইন আছে যেসব খাবারে, ঘুমাতে যাওয়ার আগে এসব এড়িয়ে চলুন। এধরণের খাবার, যে চা, কফি বা কোনো উত্তেজক পানীয় আপনার ঘুমকে বিঘ্নিত করতে পারে।

আপনার ঘর এবং শরীর ঠান্ডা রাখুন:

ঘুমানর জন্য ঠান্ডা পরিবেশ সবচেয়ে জরুরি। এজন্য আপনার ঘর এবং শরীরের কিছু তাপমাত্রা কমানো দরকার। ঘর ঠান্ডা রাখতে আপনি জানালা খোলা রাখতে পারেন, অথবা বৈদ্যুতিক ফ্যান বা শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা রাখতে পারেন।

আর শরীর ঠান্ডা রাখতে রাতে যতটা সম্ভব কম ক্যালরির খাবার গ্রহণ করা জরুরি। ক্যালরি পুড়িয়েই শরীর তার কাজ করার শক্তি উৎপন্ন করে।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

ফলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। রাতে যেহেতু কোনো পরিশ্রমের কাজ করা হয় না, কাজেই এসময় কম ক্যালরিযুক্ত খাবার খেলেই আপনার শরীরের তাপমাত্রা খানিকটা নেমে আসবে।

সঠিকভাবে ব্যয়াম করুন:

প্রতিদিন নিয়মিত ব্যয়াম অনেকাংশেই আপনার চাপ কমিয়ে দেবে এবং আপনাকে শিথীল থাকতে সাহায্য করবে। যেহেতু ব্যয়াম শরীরের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয়, কাজেই সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরই এই কাজ করা সবচেয়ে ভালো।

গরম পানি দিয়ে গোসল করুন:

ঘুমাতে যাওয়ার ৪ ঘণ্টা আগে যদি হালকা গরম পানি দিয়ে গোসল করা হয়, তাহলে তা আপনাকে আরো শিথীল করে দেবে। যেহেতু এই কাজ আপনার শরীরের তাপমাত্রা কৃত্রিমভাবে বাড়িয়ে দেবে, তাই যখন আপনার শরীর ঠান্ডা হতে শুরু করবে, আপনার ভালো লাগবে।

কিছু লেখাপড়া করতে পারেন:

কিভাবে নিজেকে শান্ত এবং শিথিল রাখা যায়, সে বিষয়ে পড়ালেখা করে আরো ভালো কোনো পথ বের করতে পারেন আপনি।

ভালো চিন্তা করুন:

সবসময় ভালো চিন্তা করুন। যেসকল চিন্তা মনের ওপর চাপ সৃষ্টি করে, সে চিন্তাগুলো থেকে ঘুমাতে যাওযার আগে নিজেকে দূরে রাখুন।

অনাকাঙ্ক্ষিত শব্দ থেকে নিজেকে দূরে রাখুন:

ঘুমাতে যাওয়ার সময় বা তন্দ্রাচ্ছন্ন অবস্থায় হঠাৎ যদি অনাকাঙ্ক্ষিত শব্দ এসে আপনাকে বিরক্ত করে, তাহলে ঘুমের চরম ক্ষতি হয়। অনেক ক্ষেত্রে সারারাত আর গুমই হয় না। অতএব ঘুমানর ঘরটিতে যেন কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত শব্দ প্রবেশ করে ঘুমে বিঘ্ন না ঘটায়, সে ব্যবস্থা করুন।

শ্বাস নিন:

গভীর শ্বাস নিন ঘুমানর সময়। আপনি হয়তো শ্বাস নেওয়া এবং প্রশ্বাস ছাড়ার সময় নিজের মতো করে সময় গণনা করে নিতে পারেন।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply