,
আপডেট

৪টি ছোট্ট কাজে চিরকাল থাকুন সুন্দর দেহের অধিকারী

ইদানিং অনেকেই একটি সমস্যায় ভুগছেন। আর সমস্যাটি হলো মুটিয়ে যাওয়া। কিছু খাওয়া হোক আর না হোক, মুটিয়ে যাচ্ছেন আপনি। কোনো ভাবেই ঠিক রাখতে পারছেন না দেহের আকার।

আর এই নিয়ে দুশ্চিন্তারও শেষ নেই। কোনো পোশাক পরেই শান্তি পাচ্ছেন না। সেই সঙ্গে মুটিয়ে যাওয়ার কারণে নানান রকম শারীরিক অসুবিধাও হচ্ছে।

দেহের আকৃতি সুন্দর রাখার জন্য দরকার কিছু নিয়ম মেনে চলার। কিছু সাধারণ ও সহজ নিয়ম মেনে চলার মাধ্যমেই শরীরের আকৃতিকে রাখা যায় সুন্দর ও সুঠাম। আসুন জেনে নেয়া যাক দেহের আকৃতি ঠিক রাখার ৪টি সহজ উপায়।

বেশিক্ষণ বসে থাকবেন না:

আপনি কি সারাদিন কম্পিউটার কিংবা টেলিভিশনের সামনে বসে থাকেন? কিংবা অফিসের চেয়ারে বসে একটানা অনেক ঘন্টা সময় পার করে ফেলেন? তাহলে আপনার এই অভ্যাস অনতিবিলম্বে বদলে ফেলা জরুরী।

বেশিক্ষন এক স্থানে বসে থাকলে শরীরে বেশ সহজেই মেদ কমে যায়। তাছাড়া পেটের মেদও বেড়ে যায় এক স্থানে সারাক্ষণ বসে থাকলে। কাজের ফাঁকে উঠে মাঝামাঝিই হাঁটাহাঁটি করুন। লাঞ্চে বাইরে গেলে হেঁটে যান, লিফটে না চড়ে সিঁড়ি ব্যবহার করুন। তাহলেই শরীরে মেদ জমার সম্ভাবনা কমে যাবে অনেকখানি।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

নিয়মিত ব্যায়াম:

নিয়মিত ব্যায়ামের জন্য নির্ধারিত সময় রাখুন। এই সময়টাতে যতই আলসেমি লাগুক না কেন, কোনো ভাবেই ব্যায়াম বাদ দেয়া যাবে না। সকল অলসতা পরিহার করে নিয়মিত হালকা ব্যায়াম করলে দেহের আকৃতি ঠিক থাকে। আপনার দেহের আকৃতি যদি সুন্দর হয়েও থাকে তবুও নিয়মিত ব্যায়াম করা উচিত। তাহলে মুটিয়ে যাওয়ার ভয় থাকবে না।

ফাস্ট ফুড এড়িয়ে চলুন:

যারা ফাস্ট ফুড ভালোবাসেন তাদের জন্য দুঃসংবাদ হলো যে ফাস্ট ফুড খেলে দেহের আকৃতি খুব দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। ফাস্ট ফুডে থাকে প্রচুর ক্যালোরি যা শরীরে মেদ জমিয়ে ফেলে।

শরীরের আকৃতি সুন্দর রাখার জন্য তেলে ভাজা, অতিরিক্ত চর্বি যুক্ত ও ফাস্টফুড জাতীয় খাবার পরিহার করা উচিত। লাঞ্চ কিংবা নাস্তায় ফাস্ট ফুড খাওয়ার বদলে বাসা থেকে খাবার নিয়ে যান। কিংবা ক্ষুধা লাগলে খাওয়ার জন্য সঙ্গে ফল রাখতে পারেন। তাহলে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি এড়িয়ে শরীরের আকৃতি সুন্দর রাখা যাবে।

কোমল পানীয় এড়িয়ে চলুন:

অনেকেই নিয়মিত কোমল পানীয় খেয়ে থাকেন। সবারই খুব পছন্দের এই পানীয়টি শরীরের কোনো উপকারে তো আসেই না বরং উল্টো ক্ষতি করে। কোমল পানীয় খেলে শরীরের মেদ বেড়ে যায়।

ফলে নিয়মিত কোমল পানীয় খেলে শরীরের স্বাভাবিক আকৃতি নষ্ট হয়। তাই শরীরের আকৃতি সুন্দর রাখলে কোমল পানীয় পরিহার করুন। খাদ্যতালিকা থেকে কেবল এই কোমল পানীয় পানের অভ্যাসটা বাদ দিলেই দেখবেন ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখা কী ভীষণ সোজা একটি কাজে পরিণত হয়েছে।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply