৩ টি ছোট্ট পরিবর্তনে নিয়ন্ত্রণে রাখুন উচ্চ রক্তচাপ | হেলথ বার্তা
,
শিরোনাম

৩ টি ছোট্ট পরিবর্তনে নিয়ন্ত্রণে রাখুন উচ্চ রক্তচাপ

পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষই উচ্চ রক্তচাপ নিয়ে বেশি চিন্তিত থাকেন। কিন্তু নিম্ন রক্তচাপও যে একইভাবে ক্ষতিকর ও স্বাস্থ্যের জন্য সমানভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে তা অনেকেই ভাবেন না। তাই রক্তচাপকে রাখা উচিত স্বাভাবিক পর্যায়ে। তা যেন উচ্চ পর্যায়ে না যায় পাশাপাশি নিম্ন পর্যায়েও না নামে সেদিকে খেয়াল রাখা উচিত। আপনি চাইলেই মাত্র ৩ টি ছোট্ট পরিবর্তনে রক্তচাপকে স্বাভাবিক রাখতে পারেন। আসুন জেনে নিই এই ছোট্ট পরিবর্তনগুলো সম্পর্কে।

১. শারীরিক ব্যায়াম

আপনার দৈনন্দিন জীবনের ছোট্ট পরিবর্তনগুলোর একটি হতে পারে শারীরিক ব্যায়াম। ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই। এটি পুরো বিশ্বব্যাপী সর্বাধিকভাবে স্বীকৃত। প্রতি সপ্তাহে অন্তত ১৫০ মিনিট বিভিন্ন ধরণের ব্যায়ামের মাধ্যমে সহজেই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা যায়। গবেষণায় দেখা গেছে।

প্রতি সপ্তাহে দিনে পাঁচবার ৩০ মিনিট করে ব্যায়াম বা হাঁটার ফলে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়া সম্ভব। স্বাস্থ্য স্টাডির গবেষণার উদাহরণে বলা যায়, যারা অন্তত ৩০ মিনিটের জন্য দ্রুত বেগে হাঁটে বা অন্য পন্থায় ব্যায়াম করে, তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি অনেক কম এবং রক্তচাপের মাত্রা স্বাভাবিক পর্যায়ে থাকে।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

২. কম সোডিয়াম এবং ফাইবারযুক্ত খাবার

কম সোডিয়াম, উচ্চ ফাইবার ও পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামযুক্ত খাদ্যে উচ্চ রক্তচাপ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি থাকে। আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের এক গবেষণায় দেখানো হয়েছে যে, কিছু দৈনন্দিন খাবারের কারণে উচ্চ রক্ত চাপ সৃষ্টি হতে পারে। তাই এই গবেষণাটিতে স্ট্রোকের প্রতিরোধ হিসাবে কম সোডিয়াম, উচ্চ ফাইবার ও পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামযুক্ত খাদ্য গ্রহণের প্রতি অধিক উৎসাহিত করা হয়েছে।

৩. অন্তত ৫% ওজন কমানো

গবেষণায় দেখা গেছে বাড়তি ওজন থেকে মাত্র ৫- ১০% ওজন কমালে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস পায়। সেই সাথে অতিরিক্ত কোলেস্টেরল, রক্তচাপ, হৃদরোগ, এবং আরো অন্যান্য স্বাস্থ্য ঝুঁকি হ্রাস পায়। গবেষকরা বলেন, কমপক্ষে পাঁচ পাউন্ড ওজন কমানো উচিত, অন্যথায় সুস্থ প্রাপ্তবয়স্কদের রক্তচাপ বাড়তে পারে।

একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, ২২ থেকে ৫৫ বছর বয়সী যারা প্রতিদিন ৮০০ ক্যালরি পর্যন্ত খাবার খাওয়া কমিয়েছেন, তারা ওজনের সাথে সাথে উচ্চ রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছেন।

স্থূলতা এবং উচ্চ রক্তচাপ এর মাঝে এক ধরনের পারস্পরিক সম্পর্ক রয়েছে। একটি বাড়লে আরেকটি দ্বারা শরীর আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়। তাই যত দ্রুত সম্ভব অন্ততপক্ষে ৫ শতাংশ ওজন কমিয়ে আনার এই ছোট্ট কাজটি করে শরীরকে সুস্থ স্বাভাবিক রাখুন।

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে