,
আপডেট

যে ৬ টি সহজলভ্য প্রোটিন নিয়ন্ত্রণে রাখবে আপনার ওজন

প্রোটিন মানেই কি মাছ-মাংস-ডিম ও দুধ? না, তা একেবারেই নয়। মাছ-মাংস-ডিম-দুধ এই সবই হচ্ছে প্রাণীজ প্রোটিনের উৎস। এছাড়াও প্রোটিনের জন্য আমরা নির্ভর করতে পারি উদ্ভিজ্জ প্রোটিনের ওপরে যা খুবই সহজলভ্য, এছাড়াও মাছ-মাংস-ডিম-দুধ ছাড়াও প্রোটিনের আরও প্রাণীজ উৎসও রয়েছে।

এবং সবচাইতে ভালো দিকটি হলো এইসকল প্রোটিন ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষভাবে কার্যকরী। প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার হজম হতে দেরি হয় এবং এটি আমাদের কম ক্ষুধার উদ্রেক করে, যার ফলে আমরা আজেবাজে খাবার একটু কমই খেয়ে থাকি। এতে করেই নিয়ন্ত্রণে থাকে ওজন। আজ চিনে নিন সহজলভ্য কিছু প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

 বাদাম

মাত্রে ১ গ্রাম কাজু বা কাঠবাদামে রয়েছে মাত্র ১৫০-১৭০ ক্যালরি। বাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন এবং ফাইবার যা অনেকটা সময় ধরে ক্ষুধার উদ্রেক করে না। মাত্র ১/৪ কাপ বাদামে রয়েছে প্রায় ৮ গ্রাম প্রোটিন। আপনার সাধারণ স্ন্যাকসের পরিবর্তে বাদাম খেলে আপনি বরং নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন ওজন। কোনো ধরণের বাড়তি ক্যালরি ছাড়াই।

 ছোলা/বুট

সকাল কিংবা বিকেলের নাস্তায় ছোলা বা বুট রাখুন ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে। উচ্চ মাত্রার প্রোটিন সমৃদ্ধ এই খাবারটির মাত্র ১ কাপ পরিমানে রয়েছে ৪৫ গ্রাম স্লো আক্টিং কার্ব এবং ১২ গ্রাম ফাইবার। আপনি অনায়েসে ভাত এবং আটার রুটির পরিবর্তে খাদ্যতালিকায় এই ছোলা বা বুট রাখতে পারেন। এতে করে প্রোটিনের চাহিদা মিটবে এবং নিয়ন্ত্রণে থাকবে ওজন।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

 ডাল

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সব চাইতে ভালো উদ্ভিজ্জ প্রোটিন হচ্ছে ডাল। ১ কাপ পরিমাণে রান্না করে ডালে রয়েছে ১৮ গ্রাম প্রোটিন এবং খুব ভালো মাত্রার কার্বোহাইড্রেট। যারা ওজন ঠিক রাখার ব্যাপারে আগ্রহী তারা ডালের স্যুপ পর্যন্ত খেতে পারেন। অনেকটা সময় ধরে পেটে থাকবে এই প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারটি।

কুমড়োর বিচি

কুমড়োর বিচি অনেকেই ফেলে দিয়ে থাকেন। কিন্তু ফেলে না দিয়ে রোদে শুকিয়ে নিন। কারণ কুমড়োর বিচি প্রোটিনের অনেক ভালো একটি উৎস। বিকেলে একটু ভেজে খোসা ছাড়িয়ে অথবা সাধারণ তরকারীতে শিমের বিচির মতো ব্যবহার করতে পারেন প্রোটিন সমৃদ্ধ এই বিশেষ খাবারটিকে।

 দই

স্ন্যাকস হিসেবে প্রোটিন সমৃদ্ধ দই বেশ ভালো একটি খাবার। রক্তের সুগারের মাত্রা কমাতেও দই বিশেষভাবে কার্যকরী। তবে বাজারে কিনতে পাওয়া যায় এমন কৃত্তিম দই নয়। ভালো কোনো বিশ্বস্ত দোকানের দই অথবা বাসায় বানানো দই খাওয়া ভালো। বাসায় দই বানালে এতে চিনি ব্যবহার না করাই ভালো।

 চীজ বা পনির

অনেকের ধারণা চীজ বা পনির অনেক ফ্যাটযুক্ত খাবার। কিন্তু মাত্র আধা কাপ পনিরে রয়েছে ১৪ গ্রাম প্রোটিন এবং মাত্র ৮০ ক্যালরি। সুতরাং এটি মোটেও অতিরিক্ত ফ্যাট সমৃদ্ধ কিছু নয়। বরং অনেকটা প্রোটিনের ভালো উৎসই বলা চলে। এবং এই প্রোটিন ওজন নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply