,
আপডেট

গর্ভাবস্থায় মদ্যপান করলে কমে শিশুর মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা !

গর্ভবতী মায়েরা যারা নিয়মিত মদ্যপানে অভ্যস্ত তাদের এবার অ্যালকোহলকে বিদায় জানাতে হবে৷ গবেষকেরা জানিয়েছেন, গর্ভাবস্থায় মদ্যপান করলে শিশুর মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতাকে কমিয়ে দিতে পারে৷ শিশুর শরীরে ফাটাল অ্যালকোহল স্পেকট্রাম ডিসঅর্জার (এফএএসডি) থাকলে, তাদের অন্যান্য শিশুর তুলনায় মস্তিষ্কের উর্বরতা কম থাকে৷ ফলে কোন সাধারণ কাজও তারা সঠিক ভাবে করতে পারে না৷

এফএএসডিকে সাধারণত জন্মগত ত্রুটি হিসেবেই দেখা হয়৷ এটি কেবল মাত্র তখনই হওয়া সম্ভব, যখন একজন মা তার গর্ভবস্থায় মদ্যপান করেন৷ গর্ভাবস্থায় মদ্যপান করার ফলে এটি মাতৃ জঠরেও প্রভাব বিস্তার করতে পারে৷ ফলে শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ বাধাপ্রাপ্ত হয়৷ এমনকি শৈশবকালে মস্তিষ্ক ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে৷

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলসের দ্য সাবান রিসার্চ ইনস্টিটিউট অফ চিলড্রেন্স হসপিটালের চিকিৎসক প্রাপ্তি গৌতম জানিয়েছেন, যে শিশুদের এফএএসডি সংক্রান্ত সমস্যা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে ফাংশনাল ম্যাগনেটিক রিসোনেস্ট ইম্যাগিং (এফএমআরআই) করা হয়ে থাকে৷ এর সাহায্যে শিশুর মস্তিষ্কের সক্রিয়তা পরীক্ষা করা হয়৷ গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, মায়েরা গর্ভবস্থায় মদ্যপান করেছেন তাদের শিশুর ক্ষেত্রে একটি পরিবর্তনও লক্ষ করা যায়৷

গবেষকেরা এটি পরীক্ষা করার জন্য এফএএসডি আক্রান্ত শিশু ও সাধারণ শিশুদের উপর প্রায় দুই বছর ধরে পরীক্ষা চালান৷ সাবান রিসার্চ ইনস্টিটিউটের এলিজাবেথ সোয়েল জানিয়েছেন,‘আমরা দেখেছি দুই ধরনের শিশুর মধ্যে মস্তিষ্কের সক্রিয়তার বিস্তার প্রায় একেবারেই আলাদা৷ এফএএসডি আক্রান্ত শিশুরা বিভিন্ন কার্যাবলির মধ্যে পার্থক্যও বুঝতে পারে না৷’

তিনি আরও জানান, ‘স্বাস্থ্যবান শিশুদের মধ্যে ধীরে ধীরে যেমন মস্তিষ্কের সক্রিয়তা বৃদ্ধি পায় তেমনই এফএএসডি আক্রান্ত শিশুদের মস্তিষ্ক ধীরে ধীরে নিস্তেজ হয়ে পড়ে বিশেষ করে মস্তিষ্কের প্রাথমিক ও নির্দিষ্ট কিছু অংশে এই বিভিন্নতা লক্ষ করা যায়৷ এমনকি শিশুদের দৃষ্টি শক্তির উপরেও প্রভাব পড়তে পারে৷’ সম্প্রতি এই গবেষণাটি সেরিব্রাল কোর্টেক্স জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে৷

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply