,
আপডেট

বাতিকগ্রস্ত রোগী বিষয়ে চার তথ্য

অবসেসিভ-কমপাল্সিভ ডিজঅর্ডার (ওসিডি) বা বাতিকগ্রস্ততা এক ধরনের মানসিক রোগ। এ রোগে অযৌক্তিক বা অনাকাঙ্ক্ষিত চিন্তার আচ্ছন্নতা দেখা যায়। তবে এ রোগটি সম্পর্কে অনেকেই অন্ধকারে রয়েছেন। ফলে এ রোগীদের সঠিক চিকিৎসাও জোটে না, যা পরবর্তীতে রোগটিকে আরও বাড়িয়ে তোলে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হাফিংটন পোস্ট।

১. উদ্বেগের চেয়ে বড় কিছু
অবসেসিভ-কমপাল্সিভ ডিজঅর্ডারে ভোগা ব্যক্তিরা শুধু উদ্বেগেই থাকেন না, তার চেয়েও বড় কিছু হয়। তাদের মনের মাঝে উদ্বেগের চেয়েও বেশি হয় ভয় ও সংশয়। গবেষকরা মনে করছেন, মস্তিষ্কের রাসায়নিক ভারসাম্যহীনতা এর অন্যতম কারণ। এতে কোনো লাগামছাড়াই চিন্তাভাবনা চলতে থাকে।

২. খুঁতখুঁতে স্বভাব এ রোগের সামান্য অংশ

এ রোগে আক্রান্ত অনেক রোগীই খুঁতখুঁতে স্বভাবের হয়। তাদের বারবার হাত ধুতে দেখা যায়। অনেকেই বাড়ির দরজায় লাগানো তালা বারবার পরীক্ষা করতে থাকেন। তবে এটি এ রোগের অতি সামান্য অংশ।

৩. পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বা গোছানোর সঙ্গে এ রোগের সম্পর্ক নেই

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

এ রোগের প্রায় এক তৃতীয়াংশ রোগীকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে অত্যধিক চিন্তিত দেখা যায়। তাই অনেকেই এ ধরনের রোগীদের খুব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন বলে মনে করেন। যদিও বিষয়টি এত সাধারণ নয়। এ আচরণ এ ধরনের রোগীদের রোগের একটি প্রকাশ মাত্র। পরবর্তীতে এ ধরনের রোগীদের আরও বহু সমস্যা দেখা যায়। যেমন- বিভিন্ন ধরনের চিন্তা ভাবনাগুলো রোগীর মনে পুনঃপুনঃ দেখা যায়।

অনেক সময় রোগী ভেবে নেয় যে, যক্ষ্মা, ক্যান্সার, এইডস হয়েছে। অদ্ভুত সব সমস্যা বা প্রশ্ন নিয়ে এতই ব্যস্ত থাকে যে প্রশ্নের সদুত্তর মেলে না। আবেশিক তাড়না বেড়ে যায়। যেমন শিশুদের দেখলেই মনে হবে কোনো বিপজ্জনক কাজ হয়ে যেতে পারে, বা মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটবে। এসব চিন্তা তাকে অস্থির করে ফেলে কিন্তু বাস্তবে তা হয় না।

৪. অনিরাময়যোগ্য রোগ

এ রোগ সম্পূর্ণ সারে না। তবে নিয়মিত চিকিৎসায় এমন রোগীরা সম্পূর্ণ স্বাভাবিকভাবে বাঁচতে পারে। কিছু থেরাপি ও ওষুধের মাধ্যমে এ চিকিৎসা করা হয়। এতে রোগীরা স্বাভাবিকভাবে চিন্তা করতে সক্ষম হয়।

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply