,
আপডেট

মেয়েদের দ্রুত বয়ঃসন্ধিকাল আনে কোমল পানীয়

বিভিন্ন মিষ্টি স্বাদের পানীয় গ্রহণের কারণে শিশুদের স্থূলতা, অলসতা, স্বাস্থ্যহীনতা এবং অস্টেওপরোসিস দেখা দিতে পারে। কিন্তু নতুন এক গবেষণায় বলা হয়, এসব কোমল পানীয় শিশুদের দ্রুত বয়ঃসন্ধিকালের কারণ হতে পারে। বিশেষ করে মেয়েদের বয়ঃসন্ধিকাল দ্রুত আসতে পারে অতিমাত্রায় পানীয়।
হার্ভার্ড স্কুল এর একটি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয় ‘হিউম্যান রিপ্রোডাকশন’ জার্নালে। সেখানে বলা হয়, দিনে আধা লিটার কোলা, লেমোনেড, ঠাণ্ডা চা অথবা চিনিযুক্ত যেকোনো পানীয় মেয়েদের দ্রুত বয়ঃসন্ধিকাল ঘটাতে পারে। এ ছাড়া স্তন ক্যান্সারের সম্ভাবনা বাড়ায় ৫ শতাংশ হারে।
এ গবেষণায় ৯-১৪ বছর বয়সী ৫৫৮৩ জন মেয়ের ওপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলে। তাদের প্রতিদিন দেড় লিটার করে মিষ্টি পানীয় দেওয়া হয়। দেখা যায়, এদের প্রথম পিরিয়ড স্বাভাবিক সময়ের ২.৭ মাস আগে থেকেই শুরু হয়। এসব মেয়ের আরেকটি দলকে সপ্তাহে একবার করে পানীয় দেওয়া হতো। দেখা গেছে, তাদের পিরিয়ড সঠিক সময়ে হয়েছে।
তবে যে সব পানীয় বা জুসে ফ্রুকটোজ রয়েছে, তা এমন প্রভাব সৃষ্টি করে না। কিন্তু সুকরোজসমৃদ্ধ পানীয় বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে।
মেয়েদের বয়ঃসন্ধিকাল আসে ৯-১৩ বছরের মধ্যে। আর ছেলেদের আসে ১১-১৪ বছরের মধ্যে। এসব পানীয় খাওয়ার কারণে দেহের হরমোনঘটিত পরিবর্তন, বেড়ে ওঠা এবং হাড় গঠনের প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয়।
এই শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়াগুলো মেয়েদের মাঝে ৮ বছরের আগে এবং ছেলেদের মাঝে ১০ বছর বয়সের আগে শুরু হয়। ২০১১ সালের এক গবেষণায় বলা হয়, মিষ্টি পানীয় খাওয়ার কারণে আমেরিকায় মেয়েদের দেহে হরমোনঘটিত পরিবর্তন, বেড়ে ওঠা এবং হাড় গঠনের প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া ৭ বছর বয়সের আগেই শুরু হয়ে গেছে।
গবেষণায় দেখে গেছে, ভারতীয় উপমহাদেশে স্বাভাবিক বয়সের কয়েক মাস আগে থেকেই মেয়েদের ঋতু শুরু হয়ে গেছে বিগত দুই যুগ ধরে। এতে করে বয়ঃসন্ধিকাল দ্রুত আসে এবং তাদের স্তনের গঠন আগেই হয়ে যায়।
এ ছাড়াও কীটনাশক, প্লাস্টিক এবং শ্যাম্পুতে ব্যবহৃত উপাদান পর্যন্ত দেহের হরমোনের স্বাভাবিক কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটায়। এদের ডিডিটি এবং পিসিবিএস এর মতো উপাদান মেয়েদের মাত্র ৮ বছর বয়সেই যৌন মিলনে প্রস্তুত করে তোলে। অর্থাৎ, কম বয়সেই দৈহিক পরিপক্কতা চলে আসে।
যেহেতু এই পরিবর্তন সঠিক সময়ে আসছে না, কাজেই তা আরো অন্যান্য সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সময়ের আগে বয়ঃসন্ধিকাল বিভিন্ন প্রত্যঙ্গে টিউমারের কারণ হতে পারে। মস্তিষ্কে অয়েস্ট্রোজেন উৎপাদন অনিয়মিত হয়ে পড়ে। এতে মাথা ব্যথা, পেটে ব্যথা এবং ওজন কমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এমনকি পরবর্তিতে উচ্চরক্তচাপ, হৃদরোগ এবং ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে অনেক বেশি।
বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply