,
আপডেট

বিছানায় উপুড় হয়ে স্বমৈথুন করা যৌন স্বাস্থের জন্য চরম ক্ষতিকর!

১৯৯৮ সালে ডক্টর লওয়ারেন্স আই. সেন্ক (সেন্টার ফর কগনিটিভ থেরাপী ইন বিথ্‌হিসডা, মেরীল্যান্ড) জার্নাল অব সেক্স এন্ড মেরিটিয়াল থেরাপী তে একটি আটির্কেলের মাধ্যমে টিএমএস সম্পর্কে বিশদ বিবরন প্রকাশ করেন।

আঘাতকর হস্তমৈথুন্য সিন্ড্রোম/লক্ষন (Traumatic Masturbatory Syndrome -TMS) কি?

Traumatic Masturbatory Syndrome হল এমন একটি স্বমৈথুন্য অভ্যাস যা পুরুষ বিছানায় উপুড় হয়ে করে থাকে। কিছু টিএমএস রোগী তাদের লিঙ্গকে বিছানা, বালিশ বা অন্য কোন শক্ত বস্তুতে ঘষে থাকে। আবার অনেকেতাদের হাতকে ব্যবহার করে।

সমস্য: উপুড় হয়ে শুয়ে স্বমৈথুন্য করেলে শরীরের সমস্ত চাপ লিঙ্গের উপর পড়ে, বিশেষ করে লিঙ্গের গোড়ার দিকে।

যেহেতু এটা কোন স্বাভাবিক অভ্যাস নয় তাই এটি নারী সঙ্গীর সাথে শাররীক যৌন মিলনে গুরুতর সমস্যার সৃষ্টি করে (সামর্থ্য থাকেনা)। জরিপে দেখা গেছে যারা স্বাভাবিক স্বমৈথুন্য করেছেন তারা টিএমএস অব্যস্থ ব্যাক্তির চেয়ে শতকরা ৬.৬ ভাগ বেশি যৌন মিলন করতে পারেন।

যারা টিএমএস রোগী তাদের আরেকটি স্বাভাবিক সমস্যা হল “ইনওরগাসমিয়া”(শাররীক মিলনকালে রাগমোচন বা পুর্নকাম তৃপ্তি অর্জনে অসমর্থ হওয়াকে ইনওরগাসমিয়া বলে।) অথবা দেরীতে পুর্ন কাম তৃপ্তি অর্জন করা। অনেকটিএমএস রোগী লিঙ্গোথ্থান (লিঙ্গ খাড়া হওয়া) প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হন।

  (এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয় ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি - ঠিকানা - YouTube.com/HealthBarta)

সাধারনত যেসকল পুরুষ প্রায় আধাঘন্টাযাবৎ উপুড় হয়ে স্বমৈথুন্য করায় অভ্যস্থ ছিলেন তারা তাদের স্ত্রীদের সাথে মিলনে পুর্ন কাম তৃপ্তি অর্জনে সামর্থ হয়না,তখন তারা তাদের সঙ্গীর দুই পা এর মাঝখানে ঘষে অথবা বিছানা বা শক্ত বস্তুর সাথে ঘষে বীর্যস্থলনের চেষ্টা করেনযা তাদের নারী সঙ্গীকে অস্বস্তিতে ফেলে।

প্রায় ৬০ শতাংশ পুরুষ যারা অতিরিক্ত হস্তমৈথুন্য করেন তারাইনওরগাসমিয়া অথবা দেরীতে কাম তৃপ্তির সমস্যায় ভোগেন, আর মাত্র ৪ শতাংশ পুরুষ যারা অল্প মাত্রায় হস্তমৈথুন্যকরেন তারা এরকম সমস্যায় পড়েন।

প্রায় প্রতি তিনজনের একজন পুরুষ যারা অতিরিক্ত হস্তমৈথুন্য করেন তারা নারী সঙ্গীর সাথে শাররীক মিলনের সময়লিঙ্গথ্থান বা ইরিটিক্যাল ডিসফাংশান সমস্যয় ভোগেন। একই সময় যারা অল্প মাত্রায় হস্তমৈথুন্য করেন তাদের মাত্রশতকরা ৫ ভাগ এ সমস্যায় পড়ে।

যে সকল পুরুষ হস্তমৈথুন্য করতে অব্যস্থ হয়ে পড়ে তারা সরাসরি যোনি পথে মিলনে ততটা আনন্দ পান না – যতটাহস্তমৈথুন্য করে অর্জন করেন। কারন হস্তমৈথুন্যে কাম সুখ, উত্তেজন এবং বীর্যস্থলন নিয়ন্ত্রন করা যায়। কিন্তুযৌনমিলনে তা অনেক সময় নিজ নিয়্ন্ত্রনে থাকেনা। টিএমএস রোগীদের জন্য শাররীক মিলন পরিমানে খুব সামান্যযা তারা স্বমৈথুন্যে পেয়ে থাকেন।

পারিশেষে বলা যায় “অতিরিক্ত হস্তমৈথুন্য এবং টিএমএস অর্থাৎ বিছানায় উপুড় হয়ে স্বমৈথুন্য করা যৌন স্বাস্থের জন্য চরম ক্ষতিকর”!

বিশেষ মুহূর্তে যৌন দুর্বলতা, শুক্র স্বল্পতা, মিলনে সময় সময় কম, লিঙ্গের শিথিলতা সহ যে কোন যৌন সমস্যায় অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং স্থায়ী চিকিৎসা গ্রহন করুন। যোগাযোগ করুন ডাক্তার নাজমুলঃ 01799 044 229

আপডেট পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে

Leave a Reply